>

জয়া চৌধুরী

SONGSOPTOK THE WRITERS BLOG | 6/10/2014 |




অনুদিত কবিতা স্প্যানীশে , ওক্তাভিও পাস














Domingo en la isla De Elefanta
Octavio Paz

Imprecación


Al pie de las sublimes esculturas,
Desfiguradas por los musulmanes y los portugueses,
La multitud ha dejado un picnic de basura
Para los cuervos y los perros.
Yo la condeno a renacer cien veces
En un muladar,
Como a los otros,
Por eones, en carne viva han de tallarlos
En el infierno de los mutiladores de estatuas.
Invocación
Shiva y Parvati:
Los adoramos
No como a dioses,
Como a imágenes
de la divinidad de los hombres.
Ustedes son lo que el hombre ha de ser
Cuando pague la condena del quehacer.
Shiva:
Tus cuatro brazos son cuatro ríos,
Cuatro surtidores.
Todo tu ser es una fuente
Y en ella se baña la linda Parvati,
en ella se mece como una barca graciosa.
El mar palpita bajo el sol:
son los gruesos labios de Shiva que sonríe;
el mar es una larga llamarada:
son los pasos de Parvati sobre las aguas.
Shiva y Parvati:
La mujer que es mi mujer
Y yo,
Nada les pedimos, nada
Que sea del otro mundo:
Sólo
la luz sobre el mar,
la luz descalza sobre el mar y la tierra dormidos.




বঙ্গানুবাদে, জয়া চৌধুরী

এলিফ্যান্টা গুহার দ্বীপে এক রবিবার
ওক্তাভিও পাস


অভিশাপ
-----------

যবন পর্তুগীজদের আক্রমণকারীদের হাতে ধ্বস্ত,
অভূতপূর্ব স্থাপত্যের নিচে দাঁড়িয়ে,
সেরে গেছে মানুষজন আবর্জনার বনভোজন
বায়স চতুষ্পদের জন্য
ঢাকা চাপা দেওয়া নর্দমায়
শতবার পুনর্জন্ম নেয় বলে শেষ করে দিই মেয়েটিকে,
অন্যদেরও যেমন দিই,
যুগান্ত নিরবধি আগ্রাসী স্থাপত্যসকল
কুঁকড়ে থাকে নরকে জীবন্ত মাংসপেশী মাঝে

আকূতি
----------

শিব পার্বতীঃ
পূজা করি তোমাদের
ঈশ্বর হিসাবে নয়,
মানুষের ঈশ্বরত্বের
এক প্রতিচ্ছবির মত
মানুষকে যা হতে হয় তা তোমরা নও,
মানুষ যা গড়ে তোমরা হল সে-
কর্মফল বয়ে যাই তখন আমি
দেবাদিদেবঃ
তোমার চতুর্ভুজ যেন চার পয়স্বিনী,
প্রস্রবণ চারটি,
তোমার সমগ্র সত্ত্বা যেন এক ঝরনা
আর সেখানেই অবগাহন করেন সুন্দরী পার্বতী,
মহিমান্বিত এক জাহাজের মত দোদুল্যমান
ঋচিক তলে স্পন্দিত হয় ইরাবানঃ
শিবের পুরু ওষ্ঠ দুটি হেসে ওঠে;
সমুদ্র যেন দীর্ঘ এক দামিনী ঝলক
জলের উপরে পার্বতীরই চরণ রেখা
শিব পার্বতীঃ
সেই রমণী যেন আমার নিজস্ব নারী
এবং আমি,
কিছুই চাই না আমরা অন্য পৃথিবীর
সে সব কোন কিছুই নয়ঃ
কেবল
অর্ণব উপরিভাগে ছেয়ে থাকা
সমুদ্রের উপরে অনাবৃত হতে থাকা এক আলো নিদ্রালু সে অদিতি







Comments
0 Comments

No comments:

Blogger Widgets
Powered by Blogger.