>

ঐন্দ্রিলা মুখার্জী

SONGSOPTOK THE WRITERS BLOG | 12/10/2014 |





দ্বিতীয় পর্ব!

সন্ধ্যেবেলা শপিং সেরে পিৎজাহাটে চান্দ্রেয়ী, আত্রেয়ী আর ডিংগো। একটা কর্ণার টেবিলে .....

ডিংগো: মা রাতের জন্যে আরেকটা পিৎজা নিয়ে নাও না..

চান্দ্রেয়ী: রাতের জন্যে মানে ? এখনই প্রায় ন'টা বাজে, যা খাওয়ার খেয়ে নাও। বাড়ী গিয়ে আবার কিসের খাওয়া?

আত্রেয়ী: দিদি বেরিয়ে একটু কুলফি খাব কিন্তু ....আচ্ছা সায়নের শার্টের কালার টা একটু বেশি ডার্ক হয়ে গেলো না?

চান্দ্রেয়ী: না তো ....খুব আনকমন কালার....সবেতে এত কনফিউসড কেন?  আর তোর কথায় আমি ওকে যতটা চিনেছি তুই ভালোবেসে দিচ্ছিস,  এতেই ও ভীষন খুশি হবে দেখে নিস!

আত্রেয়ী: তাই যদি হবে , তবে জাম্বোর ব্যাপারে তুই এত কনফিউসড কেন?

চান্দ্রেয়ী: না ঠিক কনফিউসড নয়...একটু বেশি বাছাই করি কারণ তোর জাম্বোর একটু নাক উঁচু ।

আত্রেয়ী:  তাই....তো তুই কি বলতে চাইছিস জাম্বো সাধারণ জিনিসপত্র ব্যবহার করে না?

চান্দ্রেয়ী:  না,  একেবারেই তা নয়,  রাজদ্বীপ অত্যন্ত সাদাসিধে ,  সপ্রতিভ কিন্তু ও কোয়ালিটিতে বিশ্বাস করে ।

আত্রেয়ীঃ  তো, এত কিছু ভাল থাকা সত্ত্বেও,  তুই এত হাঁফিয়ে উঠেছিস কেন? আর কেনই বা তোর সাঁঝের ওপর দুর্বলতা বেড়ে  উঠেছে ......এর উত্তরটা আমাকে বল তো শুনি...

চান্দ্রেয়ীঃ (খানিকক্ষণ চুপ করে থেকে ) ত্রয়ী,  তুই ব্যাপারটা  অন্য ভাবে নিচ্ছিস। রাজদ্বীপ আর সাঁঝ দুজনের দুটো ভিন্ন জায়গা। আমার রোজকার জীবনের যে একঘেঁয়েমি .........তার প্রধাণ কারন হল তোর জাম্বোর না থাকা,  আর ঠিক ততটাই বৈচিত্রহীনতা হল আমার কিছু না করা ...এরকম একটা জায়গায় থেকে যখন আমি নিজেকে হারিয়ে ফেলছি , ঠিক সেই সময়ই সাঁঝের চোখে দিয়ে নিজেকে ফিরে পাওয়ার একটা চেষ্টা বলতে পারিস,  আমার সাঁঝের সাথে এই বন্ধুত্ব ।....হ্যাঁ তুই বলতেই পারিস সাঁঝ আমাকে ভালো বা খারাপ যাই বলুক তাতে আমার কি আসে যায়......ঠিক, কিন্তু আমার সত্যি জানতে ইচ্ছা করে এখনো আমার মধ্যে অনুভুতির সুক্ষ্মতাগুলো আদৌ আছে না মরে গেছে ......আর সবচেয়ে বড়ো কথা রোজের কথা বলার এক জন সঙ্গী...আই মিন ...ধ্যাত ...এত বোঝাচ্ছি কেন বলত ...?

আত্রেয়ীঃ  আমার ও তো সেই প্রশ্ন ......এতো বোঝাচ্ছিস কেন আর কাকে? এই কথাগুলো কি আমায় বলছিস নাকি নিজেকে ...?

চান্দ্রেয়ী:  তোদের হল ? চল...এবার এখান থেকে ওঠ ...বেরোব তো ...আর ভাল্লাগছে না।


বাড়ী ফিরতে ফিরতে প্রায় সাড়ে দশটা বেজেই গেছে ......ডিংগো টি.ভি চালাতে যাচ্ছিল .... চান্দ্রেয়ী বলল " আর টি.ভি নয় ডিংগো...এবার শুয়ে পড় ......  "চান্দ্রেয়ী চেঞ্জ করে এসে ব্যালকনিতে দাঁড়ায়...তারপর রকিং চেয়ার টা ঘুরিয়ে হাতে মোবাইল টা নিয়ে বসে ......আজ আকাশটা বেশ পরিস্কার ......দক্ষিনের হাওয়া উড়িয়ে নিয়ে যাচ্ছে ......স্বচ্ছ কালো আকাশের বুকে জোনাকির মত ...টিমটিম করে তারাগুলো জেগে আছে ...দূরে নিয়নের আলোয় মাখামাখি হয়ে আছে শুনশান রাস্তাটা...এক টা কি দুটো কুকুরের ডাক শোনা যাচ্ছে ...একটা রিক্শা দাঁড়িয়ে আছে রাস্তার পাশে ..... অদ্ভুত একটা নিশ্তব্দতায় গা ভাসিয়েছে মায়াবীনি কলকাতা ...চান্দ্রেয়ীর চোখ দুটো জুড়িয়ে আসছে ঘুমে... কোলে রাখা ফোনটা ভাইব্রেট করতে থাকে......চান্দ্রেয়ীর ঘুমের রেশটা কেটে যায়......রাজদ্বীপের ফোন .....

চান্দ্রেয়ী: হ্যালো ....বলো

রাজদ্বীপঃ হুম ...কি করা হচ্ছে ?...ওই 'সাস ভি কভি বহু থি ' মার্কা সিরিয়াল দেখছ...? আর এখন থেকেই নিজেকে' ভাবি সাস' বানিয়ে তোলার চেষ্টা করছ নাকি?

চান্দ্রেয়ীঃ  ধ্যাত ....তুমি যে কি বল তুমিই জান ...আমরা আজ শপিং এ গিয়েছিলাম ...সায়ন আসছে তো ...রবিবার. ......তুমি চলে এসো  কিন্তু শনিবার । আমি একা আর কতদিক সামলাব বল দেখি ?

রাজদ্বীপঃ পারো তো সবই... তা কি কি কিনলে শুনি ?

চান্দ্রেয়ী:  ত্রয়ী তোমার আর সায়নের জন্যে দুটো শার্ট কিনেছে..... আর আমি ডিংগোকে একটা হাফ জিনস...ত্রয়ীর একটা শিফন শাড়ী....সায়নের জন্যে পার্ক অ্যাভিনিউয়ের একটা পারফিউম আর শেভিং সেট কিনে দিয়েছি ...তুমি রাতে কি খেলে? 

রাজদ্বীপ :খেয়েছি ...খেয়েছি। গেস্টহাউসের ছেলেটা ভাল রাঁধে ......তা তোমার জন্যে কি কিনলে ?

চান্দ্রেয়ীঃ  আমি আবার কি কিনব!!!

রাজদ্বীপঃ  কেন? তোমার কিছু কিনতে ইচ্ছা করে নি ?আচ্ছা বল তোমার জন্যে কি নিয়ে যাব হায়দ্রাবাদ থেকে ?

চান্দ্রেয়ীঃ না মশাই.... আমার কিছু লাগবে না ... তাও যদি আনতে চাও... তোমার যা ভাল লাগে এনো ... তুমিতো জানোই তোমার আনা যেকোনো জিনিস আমার সবচেয়ে প্রয়োজনীয় হয়ে ওঠে

রাজদ্বীপঃ আচ্ছা সকালে কি যেন বলবে বলছিলে ... পরে বলবে বললে ...

চান্দ্রেয়ীঃ কি বলতো? ওহো...না সেরকম কিছু না ...  আসলে মা বাবা নেই আমরাই তো ত্রয়ীর সব তাই না......তোমার দায়িত্ব অনেক !

রাজদ্বীপঃ সেটাও কি তোমায় বলে দিতে হবে দয়ি ...  আচ্ছা বল সাঁঝের সাথে কি গল্প করলে কদিন...?

চান্দ্রেয়ীঃ কথা সেরকম হচ্ছে কই? ডিংগোতো ল্যাপটপ ছাড়েই না...কাল রাত জেগে গল্পের বই পড়েছে .....তাই দুপুরে ঘুমচ্ছিল বলে...আমি একটু বসেছিলাম আর কি...তুমি কি রাগ করলে...?

রাজদ্বীপঃ  আমার রাগের কি আছে ...তবে কি জানো তো? তুমি তো সরল মনে সব বলছ কিন্তু বেসিক্যালি যারা এরকম চ্যাটিং করে তারা সবসময় সত্যি পরিচয় দেয় না...তার ওপর আবার একঘেঁয়েমি লাগলে বেশি দিন চালায়ও না....মাঝখান থেকে একটা ইমোশানাল অ্যাটাচমেন্টে জড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা থেকে যায়....যাক ছাড়ো....বেশি রাত জেগো না....শুয়ে পড়....ঠিক আছে মাই কিউটিপাই.....

চান্দ্রেয়ী: তুমি আগে ফিরতে পারবে না ,না? আমার একা একা ভালো লাগে না একদম.....(চান্দ্রেয়ীর গলাটা কেমন যেন বুজে আসছিল....)

রাজদ্বীপ: প্লিজ দয়ি....এভাবে বলো না....ছেলেমানুষের মতো কথা বলছ....আমারও কি ভালো লাগে তোমাকে ছেড়ে ছেড়ে থাকতে ?....একটু হাসো....শনিবার গিয়ে সব ইন্টারেস্ট পে করে দেব....ঠিক আছে ??....যাও ঘুমিয়ে পড়ো.....

চান্দ্রেয়ী : হ্যাঁ ....ঠিক আছে....সাবধানে থেকো....বাই.... গুড নাইট।

রাজদ্বীপ: গুড নাইট 

(ক্রমশ)

[ঐন্দ্রিলা মুখার্জী]



Comments
0 Comments

No comments:

Blogger Widgets
Powered by Blogger.