>

APARAJITA SEN.

SONGSOPTOK THE WRITERS BLOG | 7/10/2014 |



Ostrich



Do you not hear my words, mighty bird?
Why do you hide your face?
Why this farce?
Where can you hide, my friend?
The desert, arid, stretches on;
Shadows erode, die under your feet.
No mirage softens the horizon,
only the sky - silent, blue, merciless.
The hunter forgets the magic deer;
Without you he has no hope.
Where will you hide? how long will you run?
The uncaring sand,
will no longer hide your steps.
Your prehistoric childhood friends,
All gone now,
leaving you behind,
lonely, helpless, alone.

You still sit on the cracked egg!
hoping for a miracle, still.
But all your regrets
Will never make it whole again.
Will you consume yourself in the end?
in overwhelming hunger?
How long can nothingness last?
Listen to my logic, this once,
become a pleasure boat now,
in this sea of sand,
only you know where the oasis are.
For you never was that prudent
about the possible risks.
Let us start afresh,
in some secluded forest covered with thorns.
The sea will be there too,
Sweet dates, falling to the ground.

I shall not build an iron cage
Behind the imaginary vines;
lure the greedy buyers,
trim your abundant wings.
With your feathers strewn on earth
I will build a comely vane,
I won’t look for the flying dust
In the dark moonless nights.
Nor play the rattle in celebration,
or let my thoughts mingle
with senseless greed.
You are not the lovable songbird either
Nourished by the traitors, in nineteen twenty nine.

I know that for this destruction
We both are equally to blame.
Others have extorted their dues,
that debt we have to repay.
The narcissism nauseates me
can blindness prevent catastrophes?
don't avoid me - you will only harm yourself;
You cannot afford to make mistakes
in these distressing times.
So come, let us be allies,
help each other, serve our selfish needs :
you take me to the galaxy beyond
while I hold you fast in the mortal world.




















উটপাখি
সুধীন্দ্রনাথ দত্ত

আমার কথা কি শুনতে পাও না তুমি ?
কেন মুখ গুঁজে আছো তবে মিছে ছলে ?
কোথায় লুকোবে ? ধু-ধু করে মরুভূমি ;
ক্ষ'য়ে-ক্ষ'য়ে ছায়া ম'রে গেছে পদতলে |
আজ দিগন্তে মরীচিকাও যে নেই ;
নির্বাক, নীল, নির্মম মহাকাশ |
নিষাদের মন মায়ামৃগে ম'জে নেই ;
তুমি বিনা তার সমুহ সর্বনাশ |
কোথায় পালাবে ? ছুটবে বা আর কত ?
উদাসীন বালি ঢাকবে না পদরেখা |
প্রাকপুরাণিক বাল্যবন্ধু যত
বিগত সবাই, তুমি অসহায় একা ||

ফাটা ডিমে আর তা দিয়ে কী ফল পাবে ?
মনস্তাপেও লাগবে না ওতে জোড়া |
অখিল ক্ষুধায় শেষে কি নিজেকে খাবে ?
কেবল শূণ্যে চলবে না আগাগোড়া |
তার চেয়ে আজ আমার যুক্তি মানো,
সিকতাসাগরে সাধের তরণী হও ;
মরুদ্বীপের খবর তুমিই জানো,
তুমি তো কখনো বিপদপ্রাজ্ঞ নও |
নব সংসার পাতি গে আবার, চলো
যে-কোনো নিভৃত কণ্টকাবৃত বনে |
মিলবে সেখানে অনন্ত নোনা জলও,
খসবে খেজুর মাটির আকর্শনে ||

কল্পলতার বেড়ার আড়ালে সেথা
গ'ড়ে তুলবো না লোহার চিড়িয়াখানা ;
ডেকে আনবো না হাজার হাজার ক্রেতা
ছাঁটতে তোমার অনাবশ্যক ডানা |
ভূমিতে ছড়ালে অকারি পালকগুলি
শ্রমণশোভন বীজন বানাবো তাতে ;
উধাও তাহার উড্ডীন পদধূলি
পুঙ্খে পুঙ্খে খুঁজবো না অমারাতে |
তোমার নিবিদে বাজাবো না ঝুমঝুমি,
নির্বোধ লোভে যাবে না ভাবনা মিশে ;
সে-পাড়াজুড়ানো বুলবুলি নও তুমি
বর্গীর ধান খায় সে উনতিরিশে ||


আমি জানি এই ধ্বংসের দায়ভাগে
আমরা দুজনে সমান অংশিদার
অপরে পাওনা আদায় করেছে আগে,
আমাদের 'পরে দেনা শোধবার ভার |
তাই অসহ্য লাগে ও-আত্মরতি |
অন্ধ হ'লে কি প্রলয় বন্ধ থাকে ?
আমাকে এড়িয়ে বাড়াও নিজেরই ক্ষতি |
ভ্রান্তিবিলাস সাজেনা দুর্বিপাকে |
অতএব এসো আমরা সন্ধি ক'রে
প্রত্যুপকারে বিরোধী স্বার্থ সাধি :
তুমি নিয়ে চল আমাকে লোকোত্তরে,
তোমাকে বন্ধু আমি লোকায়তে বাঁধি ||




Comments
0 Comments

No comments:

Blogger Widgets
Powered by Blogger.