>

রত্নদীপা

SONGSOPTOK THE WRITERS BLOG | 3/10/2015 |




এইসব শূন্যতার স্পর্ধা আমাকেই মানায় ...

আমাকে মানায় তরমুজের রক্তক্ষেত । গুরুগম্ভীর বেদানা, আপেলের চঞ্চুতে ঝুলে থাকা বেদনা আমাকেই মানায় । অই যে ফসলের কিসসা , ক্রুশবিদ্ধ কপিকলের লিরিকলিপি । আমাকে ঘিরে আছে ক্যাডবেরির কেদারা , লজেন্সের নিকাহ প্রস্তাব । আমাকে মানায় তামাম প্রজাপতির স্থাপত্য । আমাকে মানায় জ্বররঙ ভূলোক । আমি মনিটর মাপা মাপা ব্যস্ত আঙুল । আমাকে মানায় রুগ্ন বাদশার আধখানা শোক ।
আমি সহস্র বছরের পুরনো যীশুকুষ্ঠ । সেইসব পাপবীণা , প্রেমের পরবর্তী অভিযাত্রীর জামা আমাকেই মানায় । একটি আসন্ন তানপুরা , অবসন্ন বারুদ ... আমাকে মানায় বেতারবিহংগ , সরস্বতীর দুষ্প্রাপ্য সরোদ ।

আমাকে মানায় জ্যা থেকে জ্যাক্লিন । আমাকে মানায় বৃষ্টির মিনি মিনি , আমাকে মানায় ব্রাহীন উদ্ধত লজেঁরি । পরবাসী যুবতীর জানালাঠোঁট আমাকে মানায় । ওই সিঁড়িশব্দ,  খুচরো ভাঙানো ঘুমের আধুলি ... তাও আমাকে মানায় । অই দুর্বার তুলসিতলা , মন্দিরের সিকিবাতাস , ঘড়ির কাঁটায় ট্রাকচালকের মুন্সিয়ানা সব আমারি ...

আমাকে মানায় সরাইখানার স্বেচ্ছাশিকারি । আমাকে মানায় পাখিদের কেচ্ছাকলি । আমাকে মানায় বুনোফুল , ভুলের পাখোয়াজ । শর্করায় নীল মাঝিমউমাছি আমাকেই মানায় । আমাকে মানায় বয় কাট মউচাক ... আমার ভেতরে জেগে ওঠারা , আমার নিভৃত আস্যাইলাম ... আমার কোকনদ আমার পোষা অ্যালজোলাম ... , আমার জরায়ুতে কথা বলা পুংকেশর ,... মানায় ... মানায় ...

অই নৃত্য , অই কুচিপুরি মেঘ । অনন্ত জলসায় লীন ডিম্বাণুবালক আমাকে মানায় । আমাকে মানায় ঈর্ষা ।আমাকে মানায় প্রলোভন । গীতাধ্যান গহন পাঞ্চ্যজন্য আমারি শিখায় । অই কুরুরাশি । ওই পাণ্ডুর পাণ্ডুনক্ষত্র আমাকে মানায় । আমাকে মানায় দ্রৌপদীর লাল্বাস । আমাকে মানায় ঋতুকালীন সুবাস । আমি সেই চুম্বকখেত্রের চুম্বনশ্রেষ্ঠ নাগ্রিক , আমি ঝলসানো এলাচনদীর বৃহত্তম দারুচিনি দীপ ।

পৃথিবীর প্রথম রেলপংক্তি আমি , পৃথিবীর শেষ রাতঅক্ষর আমাকেই মানায় । আমাকে মানায় প্রকৃতির গতি , বিকৃতি । বিকেলের চোখ । সকালের আইলাইনার , বারো হাজার মেইল । অই স্লোগানের অজগর , অই বিস্মৃতির শেকল আমাকে মানায় । অই রামধনু । অই ঘোড়সওয়ার । অই বনলতাময় সিন্দুক ... অই বয়েস না বাড়া জীবনানন্দের অপরাজিত চিবুক আমাকেই মানায় ।

অই বাঘ অই চিতাবাহিনী । অই ত্রিচক্ষু হরিণ অই স্ক্রু আঁটা ঠাণ্ডা ষ্টীল । অই ব্যাধ অই ট্রিগার লুকনো পেনেগ্রার ভায়োলিন আমাকে মানায় । আমি সেলসম্ভবা সেকেন্ড মিনিট । আমি চারটে থাবা , রাধাচূড়ার নখ । আমি চেরিফলের হরমোন টুকটুকে ... অই নেশা ফেরি করা লতানো শ্যাম্পেন আর মৃদুকেকের ওভেন ... অই মাংসের শিরোপা ... কোকেনের তাজ ... অই ওভামের ঝিলিমিলি ... সব আমাকেই মানায় ...

অই শূন্য প্রাসাদ । অই বুদ্ধ ভিক্ষু অই শ্রমণের বটঝুরি 
অই সুজাতার মহাদেশ , অই সুমিষ্ট পায়েসের স্বদেশ
 
অই ছিপছিপে শহর থকথকে গ্রাম
 
অই অসুখ অই ক্লেদ
 
অই রোদরোগা দম্পতির ঘাম
 
অই মাটির পা অই ব্রোঞ্জের গা
 
অই অশ্রু ,অই ধানসিঁড়ি
অই পানফুল , অবুঝ মৌরিস্বাদের মা
আমাকেই মানায়


[রত্নদীপা দে ঘোষ]
Comments
0 Comments

No comments:

Blogger Widgets
Powered by Blogger.