>

সাঈদা মিমি।

SONGSOPTOK THE WRITERS BLOG | 8/10/2014 |
        উৎসব ও অন্যান্য কবিতা



শুশুনিয়া পাহাড়
কালের সুড়ঙ্গপথে ভস্মমেঘ, হাজার মরণ
থেকে জন্ম নেয়া আকরিক ঝড়,
হারানো উপত্যকা... শিকারীর
চোখতুলে দাঁড়িয়েছে ক্রো-ম্যাগনন মুখ!
পূর্বজন্ম ছায়া স্পষ্ট হয়, ঢাল
বেয়ে নেমে আসা বুনোমোষ, ভল্ল হাতে
প্রস্তুত শুশুনিয়া পাহাড়ের অলীক যুবক...

অতীতের বনভূমি
কেঁপে ওঠে খ্রীষ্টতারা জন্মের আগে

প্রিয় প্রিয় মুখেরা আমার
মুখগুলি খুঁজি, প্রিয় প্রিয় মুখেরা আমার--
অসময়ে বাতাবি লেবুর ফুল!

ভীড়পথে কার হাত সভ্য বানানটাকে
বদলে দেয়? "সবই বুঝি, বয়স তো
হাওয়ায় আসেনি, চক্ষুভাব লুকাবা কিমুনে!"
পথবুড়ি বলে, এখানেই রোজ বসে
শাকডালা নিয়ে---

সিরামিক বাড়িটায় বামন টগর---
পাতাবাহারের দল, একা কলাবতী

উৎসব
উৎসব ভাব, বাতাসেও! তাইতো হরেন,
রূপের দোকানে দেখি
উপচানো বাতি, জোম্বি মানুষগুলো
সাজিয়েছে রূপের নগর,
নিজেদের মুখে কোন রূপলাগি নেই!

গেরস্ত বাজারে আজ শেষবেলা. ঘরে
ফেরা মুখ-- ছাওয়ালের লাল শার্ট,
মেয়েটার শখের নূপুর, নিজেরও কুর্তা
আছে, বৌটার চেকপাড় শাড়ি---

টিভির ঈদবাজার: সবকটা দাঁত
মেলে কি কি যেন বলছেন পাগলাটে ভাঁড়!

নাচঘর
নাচঘরের কিছু রহস্য থাকবে--
জানালায় লাল-নীল কাঁচ,
সুরুপা ঝালর, অর্ধেক আলোর
ঝাঁড়বাতি, নর্তকির গাঢ়
প্রলেপের খাঁদ বোঝা যাবে না...
বাবুর তাকিয়ার পাশে
আঙুরের শরাব, ব্যাকগ্রাউণ্ডে
ঝংকার, "মোহে ছে-এড়, ছেড় পিয়া"

তিনশ বছরের ধূলোয় পিতলের
নূপুর পড়ে ছিলো; অগ্রন্থিত.....







Comments
0 Comments

No comments:

Blogger Widgets
Powered by Blogger.